Menu

মা তিন গা‌ট্টির মাজা‌র – ভেঙে গুড়িয়ে দিয়েছে এলাকাবাসী।

nobanner

১৯৭২/৭৩ এ একজন অপরিচিত পাগল সাঁওতাল উপজাতি বৃদ্ধা মহিলার মৃত্যুর পর এলাকাবাসীর উদ্বেগে জানাজা বা দাপন বেতিত তাকে সমাহিত করা হয় – গোদনাইল চিত্তরঞ্জন মাঠের পশে।

তিনি মুসলিম না হওয়ায় তার জানাজা করা যায়নি। রাস্তার পশে সমাধি স্থল না জেনে অনেকেই পস্রাব করতো সেখানে।
পরবর্তীতে সমাধি স্থল বোজানোর জন্য বাসের কঞ্চি দিয়ে চারপাশ ঘিরে দেয়া হয় যাতে কেউ পস্রাব না করে।
২০০০ সালের পর এলাকার কিছু নেশাখোরের উদ্বেগে সেখানে ঘর বানিয়ে চলে রমরমা মাদকের বেবসা।
২০১৭ সালে হটাৎ এটা চলেযায় প্রবাবশালী কথিত হিজড়াদের হাতে, শুরুহয় মাদকের সাথে পতিতা বেবসা।
একপর্যায়ে এলাকাবাসী উপায় নাদেখে ক্ষিপ্ত হয়ে ভেঙে গুড়িয়ে দেয় মাজারটি।

নারায়ণঞ্জ, গোদনাইল, চিত্তরঞ্জন এর এই উদ্বেগ হয়তো ছড়িয়ে পড়বে সারা বাংলাদেশে।

শেয়ার করুন:

এই নিউজটি আপনার বাংলাদেশী বন্ধুদের মোবাইলে এসএমএস এ শেয়ার করুন।

AdsMic